Tuesday 22nd of May 2018 05:15:33 PM
 
  Top News:
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণহারে দ্বিতীয়, তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হচ্ছে----মো:নাসির  |  দীর্ঘমেয়াদি সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার ৫টি সহজ উপায়  |  ৫ মিনিটের কম সময়ে এসিডিটির সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়  |  Beat Diabetes: 4 Ways to Prevent Type 2 Diabetes  |  নারীদের সফলতার পেছনে রয়েছে এই ৩টি কারণ  |  পাঁচ বদভ্যাসে ক্ষুধা নষ্ট  |  এই খাবারগুলো খালি পেটে খাবেন না  |  রক্তচাপ বেড়ে যাওয়ার এ কারণটি জানেন কি?  |  কম খরচে বিদেশ ভ্রমণে এশিয়ার সেরা ৭  |  শুধু ছেলেরাই নয়, মেয়েদেরকেও দিতে হবে প্রেমের প্রস্তাব   |  উৎকৃষ্ট সব অভ্যাস যাতে মেলে সুখ  |  যে ৪টি কারণে মানুষ অজ্ঞান হয়ে যায়  |  মেঘদূত - জেবু নজরুল ইসলাম  |  3 Things Not To Say To Your Toddler  |   Men lose their minds speaking to pretty women  |  Lessons From a Marriage  |  চুইং গামে কী রয়েছে জানেন কি?  |  নিজেই তৈরি করে নিন দারুচিনি দিয়ে মাউথ ওয়াশ  |  সুস্থ থাকুন বৃষ্টি-বাদলায়  |  অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতি সামলে উঠুন ৪টি উপায়ে  |  
 
 

কানাডায় জট খুললো পদ্মা দুর্নীতি মামলার

May 1, 2016, 12:07 AM, Hits: 230

 

এনজেবিডি নিউজ : পদ্মা সেতু প্রকল্পের অন্যতম পরামর্শক প্রতিষ্ঠান কানাডার এসএনসি-লাভালিনের সাবেক কর্মকর্তারা বর্তমানে কানাডায় ঘুষ-সংক্রান্ত অভিযোগে অভিযুক্ত। কানাডার সুপ্রিম কোর্ট রায় দিয়েছে যে, বিশ্বব্যাংক এ সংক্রান্ত যে তদন্ত করেছে, তার বিস্তারিত প্রকাশ করতে সংস্থাটি বাধ্য নয়। অপরদিকে প্রতিষ্ঠানটিরই সাবেক এক প্রকৌশলী বলেছেন, তিনি রাজসাক্ষী হয়ে তার সাবেক বসদের বিরুদ্ধে সাক্ষী দিতে রাজি। এ খবর দিয়েছে কানাডিয়ান ব্রডকাস্টিং করপোরেশন (সিবিসি)।
খবরে বলা হয়েছে, কানাডার সুপ্রিম কোর্ট শুক্রবার রায় দিয়েছে যে, বিশ্বব্যাংকের দুর্নীতি-বিরোধী কর্মকর্তাদের কূটনৈতিক দায়মুক্তি (ইমিউনিটি) রয়েছে। তাই টরোন্টোর আদালতে তাদের উপস্থিত হতে হবে না। মূলত, এসএনসি-লাভালিন কানাডার একটি বড় প্রকৌশল প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশের ৩০০ কোটি ডলারের পদ্মা ব্রিজ প্রকল্পে তদারকি ও পরামর্শের চুক্তি বাগাতে প্রতিষ্ঠানটির তৎপরতা সমপর্কে প্রথম প্রতিষ্ঠানটিরই একজন কর্মী (হুইসলব্লোয়ার) তথ্য ফাঁস করেন। কানাডার আদালত বিশ্বব্যাংককে নির্দেশ দিয়েছিল যে, এই কর্মী সমপর্কে তথ্যাদি যাতে তারা আদালতে সরবরাহ করে। কিন্তু বিশ্বব্যাংক এতে রাজি হয়নি। বিশ্বব্যাংক বরং সুপ্রিম কোর্টে এ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করে। সুপ্রিম কোর্ট বিশ্বব্যাংকের পক্ষে রায় দিয়েছে।
প্রতিষ্ঠানটির সাবেক জ্যেষ্ঠ ভাইস-প্রেসিডেন্ট কেভিন ওয়ালেস এ মামলায় অন্যতম অভিযুক্ত। তার আইনজীবীরা দাবি করেছিলেন যে, ব্যাংক রেকর্ড পরীক্ষা ও বিশ্বব্যাংকের তদন্তকারীদের চ্যালেঞ্জ করার সুযোগ তাদের দেয়া উচিত। এক্ষেত্রে আইনজীবীদের যুক্তি ছিল, বিশ্বব্যাংকের তদন্তকারীরাই প্রথমে কানাডিয়ান পুলিশকে দুর্নীতির বিষয়টি জানায়। তারপর পুলিশ এসএনসি-লাভালিনের কর্মীদের ওপর আড়ি পাতে ও তদন্ত শুরু করে।
সিবিএস নিউজ আরও জানতে পেরেছে যে, কর্তৃপক্ষ এসএনসি-লাভালিনের সাবেক শীর্ষস্থানীয় প্রকৌশলী মোহাম্মদ ইসমাইলের বিরুদ্ধে বিচারকার্য নভেম্বরে স্থগিত করেছে। মোহাম্মদ ইসমাইল এখন পুলিশের তদন্তে সহায়তা করছেন। ধারণা করা হচ্ছে, সাবেক জ্যেষ্ঠ ভাইস-প্রেসিডেন্ট কেভিন ওয়ালেস ও ভাইস-প্রেসিডেন্ট রমেশ শাহের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দেবেন ইসমাইল।
২০১১ সালে পদ্মা সেতুর ওই চুক্তি বাগাতে বাংলাদেশি কর্মকর্তাদের ঘুষ প্রদানের চেষ্টার অভিযোগে কানাডার টরোন্টোয় এ দুই সাবেক ভাইস-প্রেসিডেন্ট বিচারের মুখোমুখি। পরে তদারকি ও পরামর্শ চুক্তি আর বাগাতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটি।
এ সপ্তাহে এক সাক্ষাৎকারে ইসমাইল বলেন, ‘আমি অবশ্যই তদন্তকারীদের সহায়তা করবো। তদন্তকারী যে-ই হোক, পুলিশ বা যে কেউ। যাতে করে এ জিনিসের শেষ দেখা সম্ভব হয়।’
এ বিষয়টি নিয়ে কানাডার তিন শীর্ষ গণমাধ্যম সিবিসি নিউজ, গ্লোব ও দ্য মেইল এক যৌথ তদন্ত করে। তখন সাংবাদিকদের কাছে ইসমাইল বলেছিলেন যে, আফ্রিকা ও এশিয়ায় বিভিন্ন চুক্তি বাগাতে এসএনসি-লাভালিন ইন্টারন্যাশনাল ইনকর্পোরেশন নিয়মিতই ‘প্রকল্প পরামর্শ খরচের (প্রজেক্ট কনসালটেন্সি কস্ট) নামে ঘুষের বাজেট ঠিক করতো। এছাড়া কোন কর্মকর্তাকে কত অর্থ ঘুষ দিতে হবে তার সাংকেতিক হিসাবও ছিল তাদের কাছে।
ইসমাইল বলেন, এ ফৌজদারি মামলাটি তার ও তার পরিবারের জন্য ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। তিনি কয়েকশ’ চাকরির আবেদনপত্র পাঠিয়েছেন এবং নিজের প্রকৌশল ও ব্যবস্থাপনা ডিগ্রি আপগ্রেড করতে কোর্সও করেছেন। কিন্তু গত পাঁচ বছরে একটি চাকরিও পাননি তিনি।
তবে তিনি আশাবাদী এখন। তার ভাষায়- ‘আমি এখন আশাবাদী কারণ এখন আর কোনো ফৌজধারী মামলা নেই। আমি এখন আশা করছি, একজন নিয়োগদাতা আমার পরিস্থিতি বুঝতে পারবেন।’

দুর্নীতি মামলা
এদিকে ইসমাইল তার সাবেক প্রতিষ্ঠান এসএনসি-লাভালিনের বিরুদ্ধে তাকে অবৈধভাবে চাকরিচ্যুত করার অভিযোগ এনে মামলা করবেন। কোমপানি বলছে, তাকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছিল ‘পারফরম্যান্স ইস্যু’ এবং এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে। তবে আদালতে এ অভিযোগগুলোর কোনোটিই প্রমাণিত হয়নি।
খবরে বলা হয়েছে, সুপ্রিম কোর্ট যে রায় দিয়েছে শুক্রবার, তা ২০১৪ সালে নিম্ন আদালতের একটি আদেশ স্থগিত করেছে। নিম্ন আদালত বিশ্বব্যাংককে নিজেদের তদন্তের বিস্তারিত জানানোর নির্দেশ দিয়েছিল। বিশ্বব্যাংক পালটা যুক্তি দেখায়, এতে করে তাদেরকে যে কর্মী খবর দিয়েছিলেন, তিনি প্রতিশোধের শিকার হতে পারেন।
প্রসঙ্গত, পরে পদ্মা সেতু প্রকল্প থেকে পিছু হটে বিশ্বব্যাংক। এছাড়া এ ঘটনার জেরে, ২০১৩ সালে ওয়ার্ল্ড ব্যাংকের অর্থায়নে যে কোনো প্রকল্পে এসএনসি লাভালিনের অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ করা হয় ১০ বছরের জন্য।