Saturday 16th of December 2017 07:31:18 PM
 
  Top News:
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে গণহারে দ্বিতীয়, তৃতীয় শ্রেণীর শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হচ্ছে----মো:নাসির  |  দীর্ঘমেয়াদি সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার ৫টি সহজ উপায়  |  ৫ মিনিটের কম সময়ে এসিডিটির সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার উপায়  |  Beat Diabetes: 4 Ways to Prevent Type 2 Diabetes  |  নারীদের সফলতার পেছনে রয়েছে এই ৩টি কারণ  |  পাঁচ বদভ্যাসে ক্ষুধা নষ্ট  |  এই খাবারগুলো খালি পেটে খাবেন না  |  রক্তচাপ বেড়ে যাওয়ার এ কারণটি জানেন কি?  |  কম খরচে বিদেশ ভ্রমণে এশিয়ার সেরা ৭  |  শুধু ছেলেরাই নয়, মেয়েদেরকেও দিতে হবে প্রেমের প্রস্তাব   |  উৎকৃষ্ট সব অভ্যাস যাতে মেলে সুখ  |  যে ৪টি কারণে মানুষ অজ্ঞান হয়ে যায়  |  মেঘদূত - জেবু নজরুল ইসলাম  |  3 Things Not To Say To Your Toddler  |   Men lose their minds speaking to pretty women  |  Lessons From a Marriage  |  চুইং গামে কী রয়েছে জানেন কি?  |  নিজেই তৈরি করে নিন দারুচিনি দিয়ে মাউথ ওয়াশ  |  সুস্থ থাকুন বৃষ্টি-বাদলায়  |  অপ্রত্যাশিত পরিস্থিতি সামলে উঠুন ৪টি উপায়ে  |  
 
 

আমেরিকা ভ্রমনের উপর উপন্যাস 'সাগিনো ভ্যালি'

May 23, 2016, 2:30 AM, Hits: 262

 

প্রকাশিত হয়েছে 'চালচিত্র' সাহিত্য পত্রিকায়। বই আকারে বের হবে সামনের বইমেলায়।
ফেসবুক বন্ধুদের মধ্যে যাদের এখনও পড়ার সুযোগ হয়ে ওঠে নি, ধারাবাহিক এই পোষ্ট তাদের জন্য। আজ ২৩তম পর্ব)

সাগিনো ভ্যালি

২৩.
ঐতিহাসিক ক্রিকেট খেলা...

খাওয়া-দাওয়া, বিশ্রাম সেরে রুবাইয়াৎ, রাহুল, নূর, ইমরান, বাবু আর আমি বের হই ওদের ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাস পরিদর্শনে।
সাগিনো ভ্যালি স্টেট ইউনিভার্সিটি। ইকনমিক্স বিষয়ে গ্রাজুয়েশন করছে আমার বাবু।

প্রত্যন্ত এলাকায় উঁচুনীচু ল্যান্ডস্কেপ এর মাঝে চমৎকার ক্যাম্পাস। যেন শিল্পীর তুলিতে আঁকা। ক্লাসরুম, অফিস ভবন, লাইব্রেরি, জিমনেসিয়াম, সুইমিং পুল।

ঘুরে ঘুরে দেখতে থাকি। মুগ্ধ হই আর্ট এবং স্কাল্পচার ডিপার্টমেন্টের মিউজিয়াম দেখে। বেশ সমৃদ্ধ এবং চমৎকার। ভাবতে থাকি, ইউনিভার্সিটির একটা ডিপার্টমেন্ট এমন অসাধারণ মিউজিয়াম গড়ে তুলতে পারে!

সামনে লেক। লেকের ওপাড়ে সবুজ বনবিথী। ভেসে আসছে পাখির কিচির মিচির। এক পাশে স্টুডেন্ট ভিলেজ, আমাদের ভাষায় ছাত্রাবাস। আরেক পাশে পার্ক। আমরা দলবেঁধে পার্কে ঘুরে বেড়ালাম। সন্ধ্যায় একসাথে ডিনার করলাম। ডিনার শেষে রাতের সাগিনো সিটি ঘুরে ঘুরে দেখতে লাগলাম।

ভালোই লাগছে। কফি খেলাম। ওয়ালমার্টে গেলাম। সারারাত খোলা থাকে এই চেইন মার্কেট। রাত পৌনে একটায় ইমরানের মনে পড়ল, ভোরে তার বিশেষ জরুরি কাজ। বাসায় ফিরতে হবে। সে থাকে বে সিটিতে।

অতএব রওনা হলাম আমরা বে সিটির উদ্দেশ্যে। দূরত্ব ষোল মাইল। সিটির ভিতরে ঢুকে রুবাইয়াৎ বলল - আঙ্কল এখানে একটা নদী আছে। সেখানে বোটিং করা যায়। খুবই সুন্দর। চলেন দেখে আসি।

: চলো, আমার কোন আপত্তি নেই। তোমাদের সাথে ঘুরতে ভীষণ ভালো লাগছে।

নদীর পাড় জুড়ে বিশাল পাকা প্লাটফর্ম। আলো ঝলমল। শুধু বোটিং নয়।
ইমরান জানালো - এখানে লোকজন জগিং করে, ব্যায়াম করে, সাইকেল চালায়। বাচ্চারা খেলাধুলা করে।
এই গভীর রাতেও দেখলাম দু’চারজন হেঁটে বেড়াচ্ছে। সাইকেলও চালাচ্ছে কেউ কেউ।

: ক্রিকেট খেলবেন আঙ্কল?

: ক্রিকেট! বলো কী। সরঞ্জাম পাবে কোথায়?

: গাড়িতেই আছে। আমরা ভার্সিটিতে ক্রিকেট ক্লাব গড়ে তুলেছি। বাবু বলল।

: তাই নাকি? এ তো খুবই খুশির কথা। কিন্তু তোমরা মাত্র কয়েকজন বাঙ্গালী। ক্লাব চালাবে কিভাবে?

: বাংলাদেশ ছাড়াও এখানে ইন্ডিয়া, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপালের স্টুডেন্ট আছে। রুবাইয়াৎ জানায়।

: আমেরিকার কোন ইউনিভার্সিটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে একাডেমিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত ক্রিকেট ক্লাব এই প্রথম। ইমরাণ সোৎসাহে বলে।

: সেদিক থেকে আমরা পায়নীয়র। আমাদের ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষ ক্রিকেট ক্লাব গঠনের কথা ফলাও করে প্রচার করছে। জানায় নূর।

: বাঃ ভাল কাজ করেছো তোমরা।

গাড়ি থেকে ওরা ব্যাট বল নিয়ে আসে। ঠিক হোল, প্রত্যেকে দুই ওভার করে ব্যাট করবে।

অতঃপর গভীর নিশীথে বিশ্ববাসীর অগোচরে ঘটিয়া গেল অবিস্মরণীয় এক ঐতিহাসিক ঘটনা।

আইসিসি’র অনুমোদনের তোয়াক্কা না করিয়া গভীর রাতে আমেরিকার ইতিহাসে সর্বপ্রথম সীমিত ওভারের টি-টু (দুই-দুই ওভার) মিডনাইট ক্রিকেটের শুভ উদ্বোধন করিলেন সাত সমুদ্র পাড়ি দিয়া বঙ্গমুলুক হইতে আগত নিরীহ এক বঙ্গসন্তান জনাব সুধাংশু শেখর বিশ্বাস, তাহার পুত্র অরণ্য এবং অরণ্যর বন্ধুরা যথাক্রমে রুবাইয়াৎ, রাহুল, নূর ও ইমরান।

ভেন্যু হিসাবে স্বর্ণাক্ষরে লেখা রহিল মিশিগান-এর বে সিটির এই নদীর পাড়।

ঐতিহাসিক এই ক্রিকেট ম্যাচের ইতিবৃত্ত আইসিসি’র রেকর্ডে অন্তর্ভূক্ত হইবে কি হইবে না তাহা লইয়া বিন্দুমাত্র মাথা না ঘামাইয়া ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং লইয়া মহানন্দে মত্ত হইয়া রহিল তাহারা।

(চলবে)